ই-পেপার ড্রাইভিং লাসেন্সের যাত্রা শুরু

টেকভয়েস২৪ রিপোর্ট:: স্মার্ট থেকে ই-পেপার ড্রাইভিং লাসেন্সে যাত্রা শুরু করেছে বাংলাদেশ। আজ থেকে স্মার্ট ড্রাইভিং লাইসেন্স কার্ড-এর সঙ্গে যুক্ত হলো ই-লাইসেন্স-এর ব্যবহার। এর ফলে ড্রাইভিং লাইসেন্স সঙ্গে না রেখেও স্মার্টফোনে সংরক্ষণ করা ই-ড্রাইভিং লাইসেন্স দেখিয়েও চালকরা গাড়ি চালাতে পারবেন। পাশাপাশি সরকারি বেসরকারি অন্যান্য কাজেও স্মার্টফোনের ই-ড্রাইভিং লাইসেন্স ব্যবহার করতে পারবেন।

রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে রবিবার (২৪ মার্চ) সুযোগের কথা জানালো বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ)। সড়ক ও মহাসড়ক বিভাগের বিআরটিএ সংস্থাপন শাখার উপ-সচিব মো. মনিরুল আলম স্বাক্ষরিত এক সংশোধিত প্রজ্ঞাপনে এ কথা উল্লেখ করা হয়।

প্রজ্ঞাপনের সুবিধা নিয়ে এখন থেকে স্মার্টফোনে ই-লাইসেন্স দেখিয়ে গাড়ি চালাতে পারবেন চালকেরা। পাশাপাশি ই-ড্রাইভিং লাইসেন্স ব্যবহার করে ভিসা প্রসেসিং, বিদেশে ব্যবহার, চাকরিতে নিয়োগ ইত্যাদি প্রয়োজনে মোটরযান চালকদের ড্রাইভিং লাইসেন্স কার্ড ও ই-ড্রাইভিং লাইসেন্স উভয়ই সমানভাবে গ্রহণযোগ্য হবে। এছাড়াও ই-ড্রাইভিং লাইসেন্সে দেওয়া কিউআর কোড দ্বারা সরাসরি ডাটাবেইজ থেকে ড্রাইভিং লাইসেন্স সম্পর্কি তথ্যাদি যাচাই করতে পারবেন সংশ্লিষ্ট পরিদর্শক।

এর আগে গত বছর ড্রাইভিং লাইসেন্স কার্ড জটিলতায় পড়ে বিআরটিএ। বাংলাদেশে ডুয়েল ইন্টারফেস পলিকার্বনেট স্মার্টকার্ড তৈরির জন্য ভারতীয় প্রতিষ্ঠান মাদ্রাজ সিকিউরিটি প্রিন্টার্স (এমএসপি) প্রাইভেট লিমিটেডের সঙ্গে চুক্তি করে সরকারের এ সংস্থাটি। এ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় ২০২০ সালের ২৯ জুলাই। ওই দিন থেকে ২০২৫ সালের ২৮ জুলাই পর্যন্ত প্রতিষ্ঠানটি কাজ করবে। এই ৫ বছরের মধ্যে প্রতিষ্ঠানটির ৪০ লাখ কার্ড প্রিন্ট করে সরবরাহ করার কথা। চুক্তি অনুযায়ী প্রতিটি কার্ডসহ প্রিন্ট বাবদ ৩০০ টাকা ১৫ পয়সা খরচ ধরা হয়েছে। পুরো চুক্তির মূল্য ধরা হয়েছে ১২০ কোটি ৬ লাখ টাকা।

image_printপোস্টটি প্রিন্ট করতে ক্লিক করুন...