শাওমি আনলো মি নোট ১০ লাইট স্মার্টফোন
ছবি: সংগৃহীত

টেকভয়েস২৪ ডেস্ক :: গ্লোবাল টেকনোলজি লিডার শাওমি আজ (মঙ্গলবার) বাংলাদেশের বাজারে বৈপ্লবিক মি নোট সিরিজের ‘মি নোট ১০ লাইট’ স্মার্টফোন উন্মোচন করেছে।

নতুন হ্যান্ডসেটটিতে রয়েছে ফ্ল্যাগশিপ ৬.৪৭ ইঞ্চির কার্ভড অ্যামোলেড ডিসপ্লে, বহুমুখী ৬৪ মেগাপিক্সেলের কোয়াড ক্যামেরা সেটআপ, শক্তিশালী কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৭৩০জি প্রসেসর এবং দীর্ঘস্থায়ী ৫২৬০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। এছাড়াও ব্র্যান্ডটি গ্রাহকদের আরও সহজে বিক্রয়োত্তর সেবা প্রদানে দেশে নতুন ছয়টি সার্ভিস সেন্টার চালুর ঘোষণা দিয়েছে।

প্রিমিয়াম ডিসপ্লে এবং আকর্ষণীয় ডিজাইন
৬.৪৭ ইঞ্চির থ্রিডি কার্ভড অ্যামোলেড ডিসপ্লে এবং পেছনের থ্রিডি কার্ভড গ্লাস, মি নোট ১০ লাইট ডিভাইসটিকে হাতে ধরতে প্রিমিয়াম অনুভূতি দেবে। ডিভাইসটির চারদিকে মসৃণ কার্ভড ও ট্যাপার্ড এজ এবং ৯১.৪ শতাংশ স্ক্রিন টু বডি রেশিও এর কারণে ভিডিও দেখার ক্ষেত্রে মি নোট ১০ লাইট দারুণ এক অভিজ্ঞতা দেবে।

ইন-ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর এই ফোনে আরো বেশি রেসপনসিভ করা হয়েছে; ফলে চোখের পলকে আপনার প্রতিদিনের কাজকর্মের তালিকা আনলক করতে পারবেন। ডিভাইসটির সুরক্ষায় এর সামনে এবং পিছনে উভয় দিকেই কর্নিং গরিলা গ্লাস ৫ ব্যবহার করা হয়েছে।

বহুমুখী কোয়াড ক্যামেরার অভিজ্ঞতা
মি নোট ১০ পরিবারের অংশ হিসেবে মি নোট ১০ লাইট ডিভাইসটিতে দেয়া হয়েছে শক্তিশালী ক্যামেরা। বহুমুখী ৬৪ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সেটিংসে রয়েছে শীর্ষ ক্যামেরা নির্মাতা সনির আইএমএক্স৬৮৬ সেন্সর, যা খুব দ্রুত ছবি তোলার সুবিধা দেয়।

আল্ট্রা ওয়াইড ছবি নিতে রয়েছে ডেডিকেটেড সেন্সর, সেইসাথে ম্যাক্রোতে ক্লোজ শট এবং চমৎকার প্রোট্রেইট নেওয়ার সুবিধা রয়েছে। এর সঙ্গে নেওয়া যাবে ৯৬০এফপিএসে স্লো-মোশন ক্যাপচার, রয়েছে ৪কে ভিডিও শুটিং এবং ভ্লগ মোড সুবিধা। দিন কিংবা রাতের যেকোনো মুহূর্তকে ক্যামেরাবন্দি রাখতে দারুণ এক ডিভাইস মি নোট ১০ লাইট।

অতুলনীয় পারফরম্যান্স এবং বিশাল ব্যাটারি
পারফরম্যান্সের জন্য মি নোট ১০ লাইট ফোনে রয়েছে কোয়ালকমের স্ন্যাপড্রাগন ৭৩০জি চিপসেট এবং ৮ ন্যানোমিটার প্রসেস টেকনোলজি। যা আপনাকে সবসময় একটা আল্ট্রা-স্মুথ মোবাইল এক্সপেরিয়েন্স দেবে।

শক্তিশালী বিশাল ৫২৬০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি একবার সম্পূর্ণ চার্জে টানা দুইদিন ব্যবহারের সুবিধা দেবে। সঙ্গে থাকছে ৩০ ওয়াটের চার্জার, যাতে মাত্র ৬৪ মিনিটে আপনি শুণ্য থেকে ১০০% চার্জ করতে পারবেন। ডিভাইসটিতে পাওয়ার ব্যাকআপ নিয়ে কোনো দুঃশ্চিন্তা ছাড়াই নন-স্টপ কাজ ও গেইমিং করতে পারবেন।

শাওমি বাংলাদেশ-এর কান্ট্রি জেনারেল ম্যানেজার জিয়াউদ্দিন চৌধুরী বলেন, “বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো মি নোট সিরিজ আনতে পেরে আমরা আনন্দিত। আমাদের পোর্টফোলিও বাড়ানোর অংশ হিসেবে ডিভাইসটি আনতে পেরে আমরা খুশি। প্রিমিয়াম লুক ও উন্নত হার্ডওয়্যার ৫০ হাজার টাকা বাজেট সেগমেন্টে মি নোট ১০ লাইট ফোনটিকে মধ্যে ফ্ল্যাগশিপ হিসেবে, অনন্য করে তুলেছে।

তিনি আরও বলেন, পাশাপাশি আমাদের রয়েছে অসাধারণ প্রোডাক্ট লাইন-আপ। যে গ্রাহকরা ব্র্যান্ডের সঙ্গে যুক্ত হবেন তাদের দুর্দান্ত সব অভিজ্ঞতা সরবরাহ করাও আমাদের লক্ষ্য। পরিষেবার গুণগত মান আমাদের সাফল্যের অন্যতম মূল স্তম্ভ। তাই এটি আমরা আরও জোরদার করছি। দেশে নতুন করে আরও ছয়টি সার্ভিস সেন্টার চালু করে আমাদের বিক্রয়োত্তর পরিষেবার নেটওয়ার্ক বৃদ্ধি করছি। আমরা সবসময় চেষ্টা করে যাচ্ছি গ্রাহকদের সর্বোচ্চমানের সেবা দিতে ও স্বল্প দামের মধ্যে সর্বোচ্চ স্পেসিফিকেশনের পণ্য পৌঁছে দিতে।

দাম ও কবে পাওয়া যাবে
৮ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি রম ভ্যারিয়ান্টের মি নোট ১০ লাইট পাওয়া যাবে মিডনাইট ব্ল্যাক রঙে, দাম পড়বে ৩৯ হাজার ৯৯৯ টাকা। ১৭ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু করে দেশব্যাপী অথোরাইজড মি স্টোর, অনলাইন পার্টনার চ্যানেল এবং রিটেইল পার্টনার স্টোর থেকে ফোনটি কেনা যাবে।

রেড কোয়ান্টার ২০১৯ সালের চর্তুথ প্রান্তিকের এক জরিপে শাওমি বাংলাদেশে বিক্রয়োত্তর সেবা প্রদানে ‘সেরা ব্যান্ড’ নির্বাচিত হয়েছে। সর্বোচ্চমানের বিক্রয়োত্তর পরিষেবা দেবার যে প্রতিশ্রুতি তার অংশ হিসেবে দেশে আরও ছয়টি অথোরাইজড সার্ভিস সেন্টার চালু করলো শাওমি।

দেশব্যাপী ছড়িয়ে দেবার অংশ হিসেবে কক্সবাজার, গাজীপুর, পাবনা, টাঙ্গাইল, নারায়ণগঞ্জ এবং যশোরে চালু হলো সার্ভিস সেন্টারগুলো। ফলে গ্রাহকরা সারা দেশেই আরও সহজে ও দ্রুততার সঙ্গে বিক্রয়োত্তর সেবা নিতে পারবেন। নতুন ছয়টি মিলিয়ে এখন দেশে শাওমির অথোরাইজড সার্ভিস সেন্টারের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৯টি।

image_printপোস্টটি প্রিন্ট করতে ক্লিক করুন...