ইভ্যালির চেয়ারম্যান ও এমডির ব্যাংক অ্যাকাউন্ট স্থগিত
ছবি: সংগৃহীত

টেকভয়েস২৪ ডেস্ক :: দেশের আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে অনলাইনে পণ্য কেনাবেচার প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির অ্যাকাউন্ট ৩০ দিন স্থগিত রাখার নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ ফিন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ)।

মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইনে ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ রাসেলের ব্যাংক হিসাব স্থগিত করেছে বিএফআইইউ।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশের সকল আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের কাছে ইভ্যালির অ্যাকাউন্ট ৩০ দিন স্থগিত রাখার নির্দেশনা দিয়ে চিঠি পাঠায় বিএফআইইউ।

লেনদেন নিয়ে বিস্তর অভিযোগ ওঠার পর সম্প্রতি গণমাধ্যমে আলোচনায় আসে ইভ্যালি। অস্বাভাবিক ক্যাশ ব্যাক অফারের কথা বলে অর্থ নিয়ে গ্রাহকদের দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করিয়েও পণ্য সরবরাহ না করার অভিযোগ রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে।

প্রতিষ্ঠানগুলোকে চিঠি ইস্যুর তারিখ হতে ৫ কার্যদিবসের মধ্যে ইভ্যালি এবং ইভ্যালির এমডি ও সিইও এবং চেয়ারম্যানের অ্যাকাউন্টের যাবতীয় লেনদের বিস্তারিত দিতে বলা হয়েছে।

বিএফআইইউ’র উপপরিচালক ফুয়ারা খাতুনের স্বাক্ষরিত চিঠি থেকে জানা যায়, ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোহাম্মদ রাসেলের অ্যাকাউন্ট স্থগিত করতে দেশের সব ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

চিঠিতে জাতীয় পরিচয়পত্র (পুরাতন ও স্মার্টকার্ড) উভয় নম্বর উল্লেখ করে বলা হয়, মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন-২০১৯ অনুযায়ী আগামী ৩০ দিনের জন্য ইভ্যালির চেয়ারম্যান এবং এমডির ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে সকল লেনদেন স্থগিত করার নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।

চিঠিতে ইভ্যালির চেয়ারম্যান ও এমডির নামে পরিচালিত হিসাবগুলোর হিসাব খোলার ফরম, আপনার গ্রাহককে জানুন (কেওয়াইসি) ফরম, হিসাব খোলার শুরু থেকে হালনাগাদ লেনদেন বিবরণী জানতে চেয়েছে বিএফআইইউ। হিসাবগুলোতে ৫০ লাখ টাকা ও তার চেয়ে বেশি পরিমাণ টাকা জমা ও উত্তোলন সম্পর্কিত সব তথ্য যেমন, জমা ভাউচার, পে-অর্ডার, চেক এবং টাকার প্রেরক ও প্রাপকের হিসাবের তথ্য দাখিল করতে হবে।

এ ছাড়া জমাকারী ও উত্তোলনকারী ব্যক্তির ছবিযুক্ত জাতীয় পরিচয়পত্র জমা দিতে হবে বিএফআইইউতে। সব তথ্যই আগামী পাঁচদিনের মধ্যে দিতে বলা হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের এই উদ্যোগ সম্পর্কে বিএফআইইউ এর প্রধান আবু হেনা রাজী হাসান বলেন, ই-কমার্স ফার্মের ‘অবৈধ কার্যক্রম’ সম্পর্কে মিডিয়া রিপোর্ট দেখে ইভ্যালি এবং তার শীর্ষ নির্বাহীদের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট জব্দ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মোহাম্মদ রাসেল বলছেন, শিগগিরই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে বলে তিনি বিশ্বাস করেন। কর্তৃপক্ষ যা যা যাচাই করতে চাইছেন সে বিষয়ে সব রকম সহযোগিতা করবেন।

তিনি সবার কাছে নৈতিক সমর্থন আশা করে বলেন, সবাই মিলে এক সাথে সহযোগিতা করলে সমস্যাগুলো দ্রুত কাটিয়ে উঠা সম্ভব হবে।

image_printপোস্টটি প্রিন্ট করতে ক্লিক করুন...