উবার রাইড শেয়ারিং সেবায় রয়েছে যেসব সুবিধা

টেকভয়েস২৪ ডেস্ক :: কর্মব্যস্ত শহরে গণপরিবহনে চলাচলের সময় এখন নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কিত থাকেন অধিকাংশ নারীরা। পেশাজীবী নারীদের যাতায়াত ব্যবস্থাকে নিরাপদ এবং আরামদায়ক করে তুলতে শহরে রাইড শেয়ারিং সেবা দিচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় অ্যাপভিত্তিক রাইড শেয়ারিং কোম্পানি উবার।

গণপরিবহনের বিকল্প
নারীদের যাতায়াত ব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তন নিয়ে এসেছে রাইডশেয়ারিং সার্ভিস। সামর্থ্য অনুযায়ী তারা উবারের গাড়ি সার্ভিস যেমন উবার এক্স, এক্সএল, প্রিমিয়ার, হায়ার, ইন্টারসিটি, পুল এবং মোটরসাইকেল সার্ভিস ‘উবার মটো’ ব্যবহার করতে পারেন।

সেফটি ফিচার
পাঁচ জন ট্রাস্টেড কন্টাক্টের সাথে ‘শেয়ার স্ট্যাটাস’, ‘লাইভ জিপিএস ট্র্যাকিং’, ‘ভেরিফাইড পার্টনার’, অ্যাপের মাধ্যমে ২৪ ঘন্টা সহায়তা প্রদান এবং ‘টু-ওয়ে ফিডব্যক’ সুবিধা থাকছে উবার অ্যাপে। ফলে নারীরা উবারের মাধ্যমে নিরাপদ ও আরামদায়ক ভ্রমণ উপভোগ করতে পারেন।

যেসব সুবিধা রয়েছে উবারের সেফটি ফিচারে
জিপিএস ট্র্যাকড ট্রিপ : যাতায়াত করার সময় রাইডার ‘রিয়েল-টাইম জিপিএস ট্র্যাকিং’ সুবিধার মাধ্যমে কোন দিক দিয়ে যাচ্ছেন সেটা লক্ষ্য রাখতে পারবেন।

শেয়ার স্ট্যাটাস : ‘শেয়ারিং স্ট্যাটাস’ সুবিধার মাধ্যমে যাত্রাপথের বর্ণনা যেমন- গাড়ির তথ্য, ড্রাইভারের নাম ও রেটিং ইত্যাদি আপনার ৫ জন বিশ্বস্ত মানুষের সাথে শেয়ার করতে পারবেন।

জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ : উবার অ্যাপে নতুন এক ফিচার যোগ করা হয়েছে যার মাধ্যমে সরাসরি জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে কল করা যাবে। এর মাধ্যমে যেকোনো সময় অ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ এবং সরকারি এজেন্টদের পরিষেবা পাওয়া যাবে।

ভিওআইপি ফোন কল : উবারের নতুন ভিওআইপি ফিচারটি যাত্রী ও চালকদের উবার অ্যাপের মাধ্যমে একে অপরকে ফ্রি অ্যানোনিমাস কল করার সুবিধা দেয়। উবারের ভিওআইপি কল ফোনের সেলুলার পরিষেবা ব্যবহার না করে ইন্টারনেট ব্যবহার করে ভয়েস কল করার সুযোগ দেয়।

ড্রাইভার প্রোফাইলস : আপনি যখন একটি ট্রিপ বুক করবেন, উবার অ্যাপ আপনাকে চালক ও যানবাহনের বিস্তারিত বর্ণনা পাঠাবে। এতে গাড়িটির মডেল, রং ও লাইসেন্স প্লেটের নাম্বারের সাথে চালকের নাম, রেটিং ও অন্য রাইডার থেকে প্রাপ্ত ফিডব্যাক উল্লেখ থাকে।

অ্যাপের মাধ্যমে ২৪ ঘণ্টা সহায়তা : সাম্প্রতিক কোন ট্রিপ নিয়ে যদি রিপোর্টের প্রয়োজন হয় অথবা আপনার অ্যাকাউন্ট সেট আপ কিংবা ব্যবহারের জন্য কোনো নির্দেশনার প্রয়োজন হয়, আপনি উবার অ্যাপ থেকে সরাসরি সহায়তা নিতে পারবেন। উবারে যে কোনো ঘটনা রিপোর্ট করা হলে তাতে সাড়া দেয়ার জন্য সার্বক্ষণিক ইন্সিডেন্ট রেস্পন্স টিম (আইআরটি) প্রস্তুত থাকে। স্থানীয় পুলিশদের তদন্তে সহায়তা করার জন্য উবারের আরও একটি একদল রয়েছে যারা পূর্বে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীতে কর্মরত ছিলেন।

রেটিং এবং ফিডব্যাক : চালক বা যাত্রীদের কাছ থেকে কেমন ব্যবহার প্রত্যাশা করা হয় তা কমিউনিটির গাইডলাইনে পরিষ্কারভাবে উল্লেখ করা আছে। উবারের টু-ওয়ে রেটিং ব্যবস্থা যাত্রী ও চালকদের একে অপরের সাথে ভালো ব্যবহার ও সম্মান প্রদর্শন করতে উদ্বুদ্ধ করে।

যেভাবে উবার ব্যবহার করবেন
আইওএস অথবা অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীরা উবার অ্যাপসটি ডাউনলোড করে ইন্সটল করতে হবে। পরে নিজের একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে।

প্রয়োজন অনুযায়ী প্রথমে উবার এক্স, এক্সএল, উবার প্রিমিয়ার, উবার মোটো, উবার হায়ার এবং উবার ইন্টারসিটি সিলেক্ট করতে হবে। এরপর গাড়িতে তোলার স্থান এবং ভাড়া পরিশোধের বিষয়টি উল্লেখ করে রাইডের জন্য রিকোয়েস্ট পাঠাতে হবে। সাথে সাথে ড্রাইভার সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দেখা যাবে, যেমন: নাম, ছবি এবং মোটরবাইক সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য।

ট্রিপ শেষে ক্যাশ বা ডেবিট/ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে ভাড়া পরিশোধ করার পর উবার অ্যাপের মাধ্যমেই ইলেকট্রনিক্স রিসিপ্ট গ্রহণ করতে পারবেন।

প্রসঙ্গত, ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট ও কক্সবাজারসহ বিশ্বের ৭০০টিরও বেশি শহরে উবারের সার্ভিস চালু রয়েছে। বর্তমানে এই শহরগুলোতে উবার সাত ধরনের সেবা দিচ্ছে। সেবাগুলো হলো- উবার এক্স, পুল, এক্সএল, প্রিমিয়ার, হায়ার, মটো এবং উবার ইন্টারসিটি। অধিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বাংলাদেশে উবার যাত্রী ও চালকরা পাচ্ছেন ইন্সুরেন্স সুবিধাসহ আরও বিভিন্ন সেফটি ফিচার।

image_printপোস্টটি প্রিন্ট করতে ক্লিক করুন...