ওয়ালটন টিভি যাচ্ছে গ্রিসে
ছবি: সংগৃহীত

টেকভয়েস২৪ ডেস্ক :: ইউরোপে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ খ্যাত টেলিভিশনের রপ্তানি বাজার সম্প্রসারণে ব্যাপক সাফল্য দেখাচ্ছে দেশের ইলেকট্রনিক্স জায়ান্ট ওয়ালটন।

পশ্চিম ও মধ্য ইউরোপে রপ্তানি বাণিজ্য সম্প্রসারণে সাফল্য অর্জনের পর সম্প্রতি গ্রিসের মাধ্যমে দক্ষিণ ও পূর্ব ইউরোপে টিভি রপ্তানি শুরু করেছে তারা।

এই সাফল্য ইউরোপের বাজারে বাংলাদেশী তথা ওয়ালটনের তৈরি পণ্য দ্রুত ছড়িয়ে দেয়ার ক্ষেত্রে এক বিশাল মাইলফলক।

এই উপলক্ষ্যে সম্প্রতি রাজধানীতে ওয়ালটন কর্পোরেট অফিসে “গ্রিসে রপ্তানি বাজার সম্প্রসারণ” শীর্ষক এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

গ্রিসে টিভি রপ্তানির প্রথম শিপমেন্টের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের পরিচালক রাইসা সিগমা হিমা, ওয়ালটনের গ্রিক ব্যবসায়িক পার্টনার জর্জিওস টিজিয়ালাস, ওয়ালটন ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ইউনিটের প্রেসিডেন্ট এডওয়ার্ড কিম, ওয়ালটন টিভির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মোস্তফা নাহিদ হোসেন এবং ওয়ালটনের ইউরোপিয়ান বিজনেস হেড তাওসীফ আল মাহমুদ।

ওয়ালটনের গ্রিক ব্যবসায়িক পার্টনার জর্জিওস টিজিয়ালাস বলেন, ওয়ালটনের অত্যাধুনিক টেলিভিশন উৎপাদন ব্যবস্থা দেখে আমি সত্যিই খুব বিমোহিত। কঠোর গুণগত মান নিয়ন্ত্রণে তাদের প্রচেষ্টা অতুলনীয় ও প্রশংসনীয়।

ওয়ালটনের ইউরোপিয়ান বিজনেস হেড তাওসীফ আল মাহমুদ বলেন, বলকান অঞ্চলের বৃহৎতম অর্থনীতির দেশ গ্রিসে টিভি রপ্তানির মধ্য দিয়ে দক্ষিণ-পূর্ব ইউরোপের দেশগুলোতে ওয়ালটনের ব্যবসা সম্প্রসারনের সুযোগ সৃষ্টি হল।

তিনি জানান, নভেম্বরে ‘থ্যাংকস গিভিং ডে বা ব্ল্যাক ফ্রাইডে’ এবং ‘ক্রিসমাস সেলস’ কে লক্ষ্য করে গ্রিসে বাংলাদেশ থেকে বিভিন্ন মডেলের টেলিভিশন রপ্তানির প্রথম পর্বের শিপমেন্ট আগামী সপ্তাহ থেকে শুরু হচ্ছে।

ওয়ালটন টিভির সিইও মোস্তফা নাহিদ হোসেন বলেন, বিশ্ব বাজারে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ পণ্যের রপ্তানি বাজার সম্প্রসারণে কাজ করছি। যার ধারাবাহিকতায় করোনা দুর্যোগের মধ্যেও আন্তজাতিক বাজারে গত বছরের তুলনায় ওয়ালটন টিভির বিক্রি বেড়েছে ১০ গুণ।

ওয়ালটনের ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ইউনিটের প্রেসিডেন্ট এডওয়ার্ড কিম বলেন, ওয়ালটন টিভি আন্তর্জাতিক বাজারের যেকোনো দেশের স্থানীয় চাহিদা মেটাতে সক্ষম। অন্যতম সেরা গ্লোবাল ইলেকট্রনিক্স ব্র্যান্ড হওয়ার লক্ষ্যে ইউরোপের খ্যাতনামা ইলেকট্রনিক্স কোম্পানি ও বিপণনকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ব্যবসায়িক সম্পর্ক স্থাপন করছি। ইউরোপ অঞ্চলে ওয়ালটনের রপ্তনি বাজার দ্রুত সম্প্রসারিত হচ্ছে। এর ফলে বিশ্ববাজারে বাংলাদেশী ইলেকট্রনিক্সের নতুন নতুন রপ্তানি বাজার সৃষ্টির মাধ্যমে ব্যবসায়ের পরিধিও বৃদ্ধি পাবো।

image_printপোস্টটি প্রিন্ট করতে ক্লিক করুন...