জীবন বাঁচাবে অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস মেসেজ
ছবি: সংগৃহীত

টেকভয়েস২৪ ডেস্ক :: আপনার সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করে বাইরে বের হন। নতুবা আপনার জীবন বিপন্ন। বাংলাদেশ স্বাধীন,কিন্তু আপনি এখানে পুরোপুরি স্বাধীন নন।

নিজের জীবনেকে সবাই ভালোবাসে, কেউ চায় না নিজের বা পরিবারের কারোর ক্ষতি হোক। আমিও চাই না আপনাদের কারোর ক্ষতি হোক।

জীবনের অন্তিম মূহুর্তেও বাঁচার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করে মানুষ যখন ব্যর্থ হয়, তখনই নিজের জীবনকে উৎসর্গ করে দেয়।

আপনি আপনার জীবনের অন্তিম মূহুর্তে কিংবা চরম বিপদের মূহুর্তেও পুলিশ কিংবা আপনার বিশ্বস্ত পরিচিতদেরকে কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে কীভাবে জানাবেন সে বিষয়ে এখানে সংক্ষেপে আলোচনা করা হলো।

হয় তো বিষয়টা নিয়ে আপনার মনে নানান প্রশ্ন হতে পারে। প্রশ্ন আসাটাই স্বাভাবিক। কেননা কয়েক সেকেন্ডের ব্যবধানে আপনি কীভাবে পুলিশ কিংবা আপনার পরিচিতদের সাথে যোগাযোগ করবেন। তাই না?

এরকম চরম বিপদের মূহুর্তেও তাৎক্ষণিক যোগাযোগ করার জন্য জার্মান সরকার এমনই একটি (SOS) সিস্টেম চালু করেছেন, যেখানে সমুদ্রে কোনো জাহাজ বিপদের সম্মুখীন হলে তাৎক্ষণিক স্টেশনে সিগন্যাল পাঠাতে পারে যার পূর্ণরূপ হচ্ছে ( SOS- “Save Our Soul”/“Save Our Ship” )

আর এই সিস্টেমের উন্নতির ফলে মানুষের জীবনের নিরাপত্তার কথা ভেবে এটি বর্তমানে অ্যান্ড্রয়েড এবং আইফোনেও (SOS Message ) নামে সংযুক্ত করা হয়েছে যা আন্তর্জাতিকভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে।

এ সেবাটি অন করে রাখলে আপনি যেকোনো মূহুর্তে যেকোনো আক্রমণের শিকার হলে আক্রমণকারীর অগোচরে মাত্র কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে ৪ জনের সাথে (একই সঙ্গে আপনার ৫ সেকেন্ডের ভয়েস, দুটি ছবি এবং আপনার লোকেশন) শেয়ার করতে পারবেন।

এগুলো শেয়ার করার জন্য আপনার ফোন আনলক, ডাটা/ওয়াইফাই, লোকেশন এমনকি ফোনের স্ক্রিনও অন করতে হবে না, কারণ বিপদের সময় এতকিছু করার সময় পাবেন না। সময় পেলেও আক্রমণকারী আপনাকে ফোন ব্যবহার করতে দিবে না।

শুধুমাত্র আপনার ফোনের পাওয়ার বাটন একসঙ্গে পরপর তিনবার চাপলে ৩০ থেকে ৪৫ সেকেন্ডর মধ্যে SOS মেসেজের প্রক্রিয়া শুরু হবে। দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেলেও অন্তত এই সময়টুকু পাবেন।

SOS Message সিস্টেম চালু করা থাকলে পাওয়ার বাটন তিনবার চাপলে স্ক্রিন অফ থাকা অবস্থায় আপনা আপনি ডাটা, ওয়াইফাই, লোকেশন, ক্যামেরা, মাইক্রোফোন অন হয়ে যাবে।

স্ক্রিন অফ থাকা অবস্থায় আক্রমণকারীর সামনে এমনভাবে ফোনটি ধরবেন যাতে তার মুখচ্ছবি ওঠে এবং তৎক্ষণাৎ জোরে কিংবা মোবাইলের মাইক্রোফোনের সামনে বলবেন “আমি এখানে বিপদে পড়েছি, আমাকে বাঁচান”।

অথবা চিৎকার করবেন শুধু এবং ১ মিনিটের মধ্যে আপনার এই ভয়েস, আপনার লোকেশন, ছবিসহ মেসেজ চারজনের কাছে চলে যাবে, যাদের কন্টাক্ট নাম্বার আগেই সেট করে রেখেছিলেন।

আপনার এরকম একটা মেসেজ পেয়ে যে কেউ এগিয়ে যাবে, কেউ না গেলেও পুলিশ অন্তত যাবেই, কারণ আপনার মেসেজের মাধ্যমে তারা বুঝে যাবে, যে আপনি বিপদের সম্মুখীন।

তাহলে আর দেরি কেন? নিজের নিরাপত্তার জন্য এখনই SOS Message অন করে রাখুন।

এজন্য আপনাকে কোনো অ্যাপস কিংবা কোনো একাউন্ট খুলতে হবে না। এই সিস্টেমটি আপনার ফোনেই পাবেন। শুধুমাত্র অন করে চারজনের মোবাইল নাম্বার সেট করে রাখলেই হবে।

মোবাইল নাম্বার হিসেবে রাখতে পারেন আপনার নিকটস্থ পুলিশ কন্ট্রোল রুমের নাম্বার, এবং যেকোনো সময়ে আপনার কাছে পৌঁছাতে পারবে এমন তিনজন ব্যক্তির নাম্বার।

SOS Message চালু করার জন্য আপনার ফোনের সেটিংসে গিয়ে SOS লিখে সার্চ দিন। এরপর ক্লিক করলে চিত্রের মত তিনটি অপশন পাবেন সেগুলো অন করে রাখুন। সর্বোচ্চ চারজনের নাম্বার যুক্ত করুন, তাহলেই কাজ হয়ে যাবে।

বাইরে বের হওয়ার আগে মিনিমাম ১টি SMS, MMS পাঠানো যায় এমন পর্যাপ্ত ব্যালেন্স রাখুন।

image_printপোস্টটি প্রিন্ট করতে ক্লিক করুন...