না ফেরার দেশে গেলেন সিলভেস্টার হালদার
ছবি: সংগৃহীত

টেকভয়েস২৪ ডেস্ক :: না ফেরার দেশে গেলেন সমাজ উন্নয়নকর্মী সিলভেস্টার হালদার।

বৃহস্পতিবার (৩ সেপ্টম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ঢাকার তেজকুনিপাড়ার নিজ বাসায় হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৬৮ বছর।

চট্টগ্রামের পাথরঘাটার অধিবাসী সিলভেস্টার হালদার দীর্ঘদিন আন্তর্জাতিক মানব উন্নয়ন সংস্থা ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশে এসোসিয়েট ডিরেক্টরসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে থেকে সেবা দিয়েছেন। এ ছাড়া তিনি কাজ করেছেন ওয়াইএমসিএ, সিসিডিবি ও হীড বাংলাদেশে। সর্বশেষ লুথারান হেলথ কেয়ারে চেয়ারম্যান হিসেবে সেবা দিচ্ছিলেন।

৪ সেপ্টেম্বর তেজগাঁও গির্জায় তাঁর অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার পবিত্র খ্রিষ্টযাগ উৎসর্গ করেন তেজগাঁও ধর্মপল্লীর সহকারী পাল-পুরোহিত রিপন ডি’রোজারিও। পবিত্র খ্রিষ্টযাগে তাঁর আত্মার কল্যাণে প্রার্থনা করা হয়।

সিলভেস্টার হালদারের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন ঢাকা ক্রেডিটের প্রেসিডেন্ট পংকজ গিলবার্ট কস্তা, সেক্রেটারি ইগ্নাসিওস হেমন্ত কোড়াইয়া, ট্রেজারার পিটার রতন কোড়াইয়াসহ বোর্ডের অন্যান্য কর্মকর্তা।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা ক্রেডিটের ডিরেক্টর সজল যোসেফ গমেজ, পল্লব লিনুস ডি’রোজারিও ও মনিকা গমেজ।

ঢাকা ক্রেডিটের প্রেসিডেন্ট পংকজ গিলবার্ট কস্তা ও সেক্রেটারি ইগ্নাসিওস হেমন্ত কোড়াইয়া ডিসিনিউজকে বলেন, ‘কর্ম জীবনের শুরুতে সিলভেস্টার হালদারের সাথে আমাদের দুজনের ওয়ার্ল্ড ভিশনে কাজ করার সুযোগ হয়েছিলো।

তিনি ছিলেন অসম্ভব রকমের সৎ ও ভালো মানুষ। তিনি সবার সাথে মিশতে পারতেন। ছিলেন দক্ষকর্মী। তাঁকে হারিয়ে আমরা সমাজে বড়ো একজন উন্নয়নকর্মীকে হারালাম।’ তাঁরা সিলভেস্টার হালদারের আত্মার মঙ্গল কামনা করেন।

মৃত্যুকালে সিলভেস্টার হালদার রেখে গেছেন স্ত্রী ম্যাগডেলিন গমেজ, এক ছেলে ও এক মেয়েসহ অসংখ্যা আত্মীয়-স্বজন, গুণগ্রাহী ও শুভাকাঙ্ক্ষী।

তিনি যেসকল সংস্থায় সেবা দিয়েছেন, সেসকল প্রতিষ্ঠানের অনেক সহকর্মী তাঁর অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার অনুষ্ঠানে যোগদান করেন ও তাঁর কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। সূত্র : ডিসিনিউজ

image_printপোস্টটি প্রিন্ট করতে ক্লিক করুন...