প্রযুক্তির মাধ্যমে সমাজের বিভিন্ন বৈষম্য দূর করা সম্ভব

টেকভয়েস২৪ রিপোর্ট :: প্রযুক্তির মাধ্যমে সমাজের বিভিন্ন বৈষম্য দূর করা সম্ভব বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

তিনি বলেন, বৈষম্য দূর করে একটি অন্তর্ভুক্তিমূলক সমাজ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে জননেত্রী শেখ হাসিনা উন্নয়ন দর্শন ‘ভিশন ২০২১’ ঘোষণা করেছেন। আর দেশের ২৮টি হাইটেক পার্কে ‘ডিজিটাল সার্ভিস এন্ড ট্রেনিং সেন্টার’ প্রতিষ্ঠা করা হবে। এতে বিশেষভাবে সক্ষমরা প্রশিক্ষণের জন্য অগ্রাধিকার পাবেন।

শনিবার আগারগাঁওস্থ এনজিও বিষয়ক ব্যুরো মিলনায়তনে ‘প্রতিবন্ধীদের চাকরি মেলা ২০২০’ এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন উপলক্ষে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী।

পলক বলেন, বিশেষভাবে সক্ষমরা আমাদেরই সমাজের অংশ। তারা অনেক মেধাবী। তাদের জন্য আইসিটি বিভাগ হতে ২০২০ সাল মুজিব বর্ষে একটি আধুনিক জব পোর্টাল চালু করা হবে। এর মাধ্যমে বিশেষভাবে সক্ষমরা তাদের যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরির আবেদন করতে পারবেন।

পলক আরো বলেন, অন্যদিকে বিভিন্ন চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠান ভিডিও কলের মাধ্যমে দেশের বা বিদেশের যে কোনো স্থান থেকে ইন্টারভিউ গ্রহণ করতে পারবে। এছাড়াও বিশেষভাবে সক্ষমদের সাথে চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠান সাথে সংযোগ সৃষ্টি হবে।

তাদের বিষয়ে সক্ষমদের আরো সচেতন হওয়ার উপর গুরুত্বারোপ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রতিবন্ধীদের ক্ষমতায়ন করতে হলে তাদের ব্যক্তিগত সম্মান, সামাজিক মর্যাদা ও আর্থিক স্বচ্ছলতা নিশ্চিত করতে হবে। তাহলেই কেবল মাত্র তাদের প্রতি যথাযথ সম্মান প্রদর্শন করা হবে।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, বর্তমান সরকার বিশেষভাবে সক্ষমদের মর্যাদা ও অধিকার নিশ্চিত করতে ‘প্রতিবন্ধী সুরক্ষা আইন’ প্রণয়নসহ বিভিন্ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করেছে।

উল্লেখ্য, বিভিন্ন বেসরকারী প্রতিষ্ঠান চাকরিদাতা ও গ্রহীতার সাথে সংযোগ স্থাপনের লক্ষ্যে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ ২০১৫ সাল থেকে এ মেলার আয়োজন করে আসছে।

বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক পার্থপ্রতিম দেব এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, এনজিও বিষয়ক ব্যুরোর মহাপরিচালক কে এম আব্দুস সালাম এবং দেশীয় এনজিও সিএস আইডি এর নির্বাহী পরিচালক খন্দকার জহিরুল আলম ও প্রকল্প পরিচালক এনামুল কবির।